বাখমুতে ২০ হাজারের বেশি রুশ সেনা নিহত : যুক্তরাষ্ট্র

কালান্তর ডেস্ক:
গত পাঁচ মাসে ইউক্রেনের বাখমুত শহরে দুই পক্ষের লড়াইয়ে ২০ হাজারের বেশি রুশ সেনা নিহত হয়েছে। এ ছাড়া ৮০ হাজার সেনা আহত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র জন কিবরি নতুন প্রকাশিত গোয়েন্দা তথ্য উদ্ধৃত করে এই কথা জানান।

যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, নিহতদের অর্ধেক সেনাই রাশিয়ার ভাড়াটে বাহিনী ওয়াগনারের সদস্য। আজ মঙ্গলবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইন এ খবর দিয়েছে।

সাংবাদিকদের কিবরি বলেন, বাখমুত দিয়ে দোনবাসে রুশদের ব্যাপক হামলার প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। রাশিয়া প্রকৃত কৌশলগত ও গুরুত্বপূর্ণ কোনো ভূমি দখল করতে পারেনি।

তিনি বলেন, আমাদের ধারণা, বাখমুতে রাশিয়া লক্ষাধিক হতাহতের মুখে পড়েছে। এর মধ্যে ২০ হাজারের বেশি সেনা নিহত হয়েছে। গত বছরের ডিসেম্বর মাস শুরুর পর থেকে এই হিসাব করা হয়েছে।

কিবরি বলেন, মূল কথা হলো রাশিয়ার আক্রমণাত্মক প্রচেষ্টা কয়েক মাস লড়াই ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির পর তাদের কাছে পাল্টা আঘাত হিসেবে ধরা দিয়েছে।

তিনি জানান, বাখমুতে ইউক্রেনের কী পরিমাণ হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তা তিনি জানাবেন না। কারণ এখানে তারা ভুক্তভোগী, রাশিয়া আক্রমণকারী।

বিবিসি স্বতন্ত্রভাবে কিবরির দেওয়া হতাহতের সংখ্যা যাচাই করতে পারেনি। আর মস্কোও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি।

বিবিসি বলেছে, এই সংখ্যা যদি নির্ভুল হয়, তবে রুশ হতাহতের সংখ্যা যুদ্ধ শুরুর আগে বাখমুত শহরের মোট জনসংখ্যা ৭০ হাজারের বেশি। গত বছর থেকে বাখমুতের দখল নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে রাশিয়া। এতে তাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিও হয়েছে।

এদিকে যুদ্ধ শুরুর পর বাখমুতের অধিকাংশ বাসিন্দাই শহরটি ছেড়ে পালিয়েছেন। অল্প সংখ্যক বেসামরিক লোক ছোট এই শহরটিতে এখন বাস করছেন। তবে ছোট এই শহরটির জন্য লড়াই দুই পক্ষের কাছেই বড় ধরনের প্রতীকী গুরুত্ব রয়েছে।

ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ বলছে, তারা এই শহরটির লড়াইকে যতটা সম্ভব রুশ সেনা হত্যা ও তাদের মজুত খালি করার সুযোগ হিসেবে ব্যবহার করছে। যদিও শহরটির ছোট একটি অংশই কেবল এখন ইউক্রেনের দখলে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x