পরীমনি অভিনয় করে আমাকে ফাঁসিয়েছে : নাসির উদ্দিন

কালান্তর ডেস্ক:
অভিনেত্রী পরীমনির মিথ্যা মামলায় ফেঁসে গেছেন বলে দাবি করেছেন আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন আহমেদ। সাভার থানায় ও রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় হওয়া মামলার পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার এ কথা বলেন তিনি।
পরীমনির মামলায় জামিনে থাকা আসামি নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমি কোনো অন্যায় করিনি। পরীমনির মিথ্যা অভিনয়ে ভিকটিম হয়ে গেলাম। আমাকে পরীমনি অভিনয় করে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়েছে।’
এই ব্যবসায়ী বলেন, ‘পরীমনি সংবাদ সম্মেলনে চোখে গ্লিসারিন লাগিয়ে কান্নার নাটক করেছেন। সংবাদ সম্মেলনজুড়ে তিনি অভিনয় করেছেন। পরীমনির অভিনয়ের কারণে আমি ভিকটিম হয়েছি। প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করতে পরীমনি অভিনয় করেছে। তার অভিনয়ে আমি ফেঁসে গেছি। তবে আমি আশা করি, মামলার তদন্তে প্রকৃত রহস্য বের হয়ে আসবে এবং আমি ন্যায়বিচার পাব।’
নাসির উদ্দিন মাহমুদ আরও বলেন, ‘ঘটনার রাতে পরীমনি প্রথমে বনানী যায়। সে অসুস্থ থাকায় তাকে পুলিশ হাসপাতালে পাঠায়। পরে সে মামলা না করে সংবাদ সম্মেলন ডেকে অভিনয় করে। সে প্রকৃত রহস্য ডাকার জন্য সংবাদ সম্মেলন করে কারও প্ররোচনায় আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। দেশের যেকোনো নাগরিকের মামলা করার অধিকার আছে। তবে তদন্তে পরীমণির অভিনয় উঠে আসবে এবং প্রকৃত রহস্য বের হবে বলে আমি আশা করি।’
পরীমনির বিরুদ্ধে মানহানি মামলার কথা জানিয়ে নাসির উদ্দিন বলেন, ‘হয়তো আমি তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করব। যেহেতু এখন আমি জামিনে আছি এবং মামলাগুলো তদন্তাধীন, সেহেতু এখন কোনো পদক্ষেপ নেব না। তবে মামলার তদন্ত শেষ হলে আমার পরামর্শকদের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।’
প্রসঙ্গত, সাভার থানায় পরীমনির করা ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় গত ২৯ জুন আদালতে জামিন পান নাসির উদ্দিন আহমেদ। বিমানবন্দর থানায় করা মাদক মামলায় জামিন পান ৩০ জুন। এরপর গত ১ জুলাই ঢাকার কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x