সাতক্ষীরা আদালতের নির্মাণাধীন সড়ক পরিদর্শনে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ

বাবলা সরদার, (পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি):
সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ আদালত হতে চীফ জুডিসিয়াল আদালতে যাতায়াতের সড়ক (করিডোর) কেবল সড়ক নয়, টেকসই, মজবুত, নির্মান শৈলীতায় পূর্ণতা, সৌন্দর্য্য, চাকচিক্যতায় সর্বপরি দৃষ্টিনন্দনের যেন সামান্যতম ঘাটতি না থাকে, করিডোরটিতে থাকবে শিল্পি কথার স্পর্শ, শতভাগ উন্নতমানের নির্মান সামগ্রী সড়কটির প্রতিটি স্তরে সংযুক্ত থাকবে, এমন ভাবনা আর তা বাস্তবায়নের পুরধা সড়কটির রুপকার সৃষ্টিশীল সাতক্ষীরার মানবিক জজ শেখ মফিজুর রহমানের। আর তাই তিনি প্রতিদিনই নির্মানাধীন সড়কটি পরিদর্শন করছেন। গতকাল সাতক্ষীরা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হায়াত মুহাম্মাদ শাফিউল আয়াজমকে সাথে নিয়ে বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান নির্মানাধীন সড়ক পরিদর্শন করলেন। প্রকৌশলীকে নির্মান সামগ্রী সহ সড়কটি উন্নত করনের সর্বোচ্চ সতর্কতার বিষয়ে আলোকপাত করলেন। নির্মান শ্রমিকরা এ প্রতিনিধিকে জানান জজ স্যার প্রকৌশলীকে বলেছেন সড়কটি কেবল মজবুত, টেকসই নয়, পাশাপাশি সৌন্দর্য মন্ডিত ও দৃষ্টিনন্দন, করতে সামান্যতম ঘাটতি যেন না থাকে। উলে­খ্য সাতক্ষীরার আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী বিচারকাজের সাথে সংশ্লিষ্টদের সর্বপরি জেলার বিশ লক্ষাধীক মানুষের প্রাণের দাবী ছিল, অপরিহার্যতা ছিল দুই আদালতের সাথে যাতায়াতের পথ সৃষ্টি করা। আর এ জন্য প্রতিবন্ধকতার ক্ষেত্র ছিল একটি প্রাচীর। যা একাধিক মন্ত্রণালয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট ছিল প্রাচীরের অংশ বিশেষ অপসারন করার নির্দেশনা। অত্যন্ত দক্ষতার সাথে আমলাতান্ত্রীকতার প্রতিবন্ধকতাকে সুনিপুন ভাবে অতিক্রম করনের সুমহান দায়িত্বপালনের অন্যতম কৃতিত্বের অধিকারী সাতক্ষীরার বিচারঙ্গনের অভিভাবক দেশের আলোকিত বিচারক বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান। সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সম্পাদক এ্যাড. তোজাম্মেল হোসেন তোজাম জানান গত সাতজুন প্রাচীরের অংশ বিশেষ অপসারনের মধ্য দিয়ে আইনজীবী বান্ধব বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ যে নতুন দিনের শুভ সূচনা করেছেন, তা বর্তমানে চলমান। অচিরেই যাতায়াত সড়ক বাস্তবে রুপ নেবে। আর এই সৃষ্টি কেবল সৃষ্টি নয়, আমাদের অভিভাবকের (বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ) অমর সৃষ্টি, সাতক্ষীরার আইনজীবী সহ জেলাবাসি শ্রদ্ধা এবং কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x