মোংলায় করোনা রোগীদের চিকিৎসায় এগিয়ে এসেছে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড

আমির হোসেন আমু :
করোনা রোগীদের চিকিৎসায় এগিয়ে এসেছে মোংলা ইপিজেড এ অবস্থিত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ল্যাগেজ উৎপাদনকারী ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জীবন রক্ষাকারী মেডিকেল সরঞ্জামাদী হস্তান্তরের মধ্য দিয়ে পাশে দাড়ালো এ প্রতিষ্ঠানটি। এ প্রতিষ্ঠানটিতে মোংলা সহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৪ হাজার শ্রমিক কর্মরত রয়েছে।
স্বাস্থ্য বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, মোংলায় দিনকে করোনা সংক্রমনের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় চিকিৎসা সেবায় হিমসিম খাচ্ছে উপজেলা স্বাস্থ বিভাগ। এ অবস্থায় করোনায় আক্রন্তদের চিকিৎসায় গতি আনার জন্য কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশিষ কুমার সাহা’র আন্তরিকতায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোভিড ইউনিটে ১৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার সেট, ২টি অক্সিজেন জেনারেটর এবং ১৫টি হসপিটাল বেড বিনামূল্যে প্রদানের উদ্যেগ নেয়া হয়। কোম্পানীর পক্ষ হতে বাংলাদেশের মানব সম্পদ বিভাগীয় প্রধান মিজানুর রহমান খান, প্লান্ট হেড জনাব শাহনেওয়াজ আলম ও প্লান্ট হেড মন্জুর আহমেদ মঙ্গলবার দুপুরে জীবন রক্ষাকারী মেডিকেল সামগ্রী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেন। একই সঙ্গে স্থানীয় সাংবাদ কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সাংবাদিকদের মধ্যে ভিআইপির তৈরী বিদেশে রপ্তানীযোগ্য তিন লেয়ারের মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরন করা হয়। এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার, সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল আসিফ ইকবাল, মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী ও মোংলা ইপিজেড এর ডেপুটি ম্যানেজার জাহিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার মলয় মল্লিক জানান, ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের দেয়া চিকিৎসা সামগ্রী সংযোজন কভিড ইউনিটের বর্তমান ধারন ক্ষমতা দ্বিগুণ হয়েছে। আর চিকিৎসা সেবায়ও গতি ফিরবে। ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের বাংলাদেশের মানব সম্পদ বিভাগীয় প্রধান মিজানুর রহমান খান জানান, করোনার প্রথম ধাক্কার সময় হতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে কারখানার কার্যক্রম পরিচালনা করে আসা এই বহুজাতিক কোম্পানি ইপিজেড অভ্যন্তরে মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালনার মাধ্যমে সকল শ্রমিকদের জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা নিশ্চিতকরন, বিনামূল্যে ঔষধ সেবা প্রদান, বিনামূল্যে মাস্ক ও সেনিটাইজার সরবরাহ সহ নানাবিধ সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এবারও ওয়ান স্টপ মেডিকেল সার্ভিসেস কর্মসূচী চালু করেছে। এ কর্মসূচীর মাধ্যমে কোম্পানীর সকল কর্মীর জন্য যে কোন সময় কোভিড শনাক্তকরণ পরিক্ষা, প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে এ্যম্বুলেন্স ও জরুরী ভিত্তিতে ঔষধ সরবরাহ সেবা নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই কোম্পানিটি ইপিজেড কর্তৃপক্ষকে এ্যম্বুলেন্স ক্রয়ে বৃহৎ অংশীদারী ভূমিকা পালন করেছে। এছাড়াও কর্মীদের নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষ ও বিমামূল্যে ঔষধ প্রদান, চিত্তবিনোদন মূলক অনুষ্ঠান আয়োজন, সামাজিক দায়িত্ব থেকে হাসপাতাল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করন সহ নানাবিধ কর্মসূচী পালনে এই কোম্পানীর ভূমিকা অনুকরনীয়। এমনকি বাংলাদেশের শিল্পক্ষেত্রে উদাহরণ তৈরী করে কোম্পানিটি লে অফ কালীন সময়েও সকল কর্মীদের বেতন ভাতা প্রদান করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x