৩ ম্যাচ নিষিদ্ধ এবং ৫ লাখ টাকা জরিমানা সাকিবের

মাঠে ময়দানে ডেস্ক :
ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবাহনীর বিপক্ষে আম্পায়ারের ওপর মেজাজ হারিয়ে লাথি দিয়ে স্টাম্প ভেঙে ফেলা ও স্ট্যাম্প তুলে আছাড় মারার ঘটনায় মোহামেডানের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ৩ ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ এবং ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
শনিবার বিকেলে ম্যাচ রেফারি মোরশেদুল আলমের পাঠানো শাস্তির নোটিশ হাতে পান সাকিব। চিঠিতে সাকিবের বিরুদ্ধে লেভেল-৩ পর্যায়ের আচরণবিধি ভাঙার অভিযোগ এনেছেন ম্যাচ রেফারি।
জানা গেছে, সাকিব অপরাধ স্বীকার করে নিয়ে চিঠিতে স্বাক্ষর করেন। শাস্তির ব্যাপারে আপত্তি না করায় এ বিষয়ে আর শুনানি হবে না। শনিবার সন্ধ্যায় ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান ও বিসিবি পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ গণমাধ্যমে জানান, ম্যাচের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারির। সে মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
নিয়ম অনুযায়ী লেভেল–৩ পর্যায়ের অসদাচরণ প্রথমবার করলে শাস্তির বিধান আছে কমপক্ষে ১ ম্যাচ থেকে সর্বোচ্চ ২ ম্যাচের বহিষ্কারাদেশ ও কমপক্ষে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা। একই ম্যাচে লেভেল-৩ পর্যায়ের অপরাধ দ্বিতীয়বার করলে সেটির শাস্তি ২ থেকে ৫ ম্যাচের বহিষ্কারাদেশ ও জরিমানা কমপক্ষে ২৫ হাজার টাকা। দুই অপরাধের জন্যই ন্যূনতম ম্যাচে বহিষ্কার করা হয়েছে সাকিবকে। প্রথম অপরাধের জন্য ১ ম্যাচ ও দ্বিতীয় অপরাধের জন্য ২ ম্যাচ। শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আবাহনীর বিপক্ষে মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব দুই বার এই আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন।
এর আগে মোহামেডান ক্লাবে সূত্রে জানা গেছে, সাকিবকে চার ম্যাচের জন্য বহিষ্কার করার সুপারিশ করা হয়েছে। গতকাল প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের বিপক্ষে এলবিডব্লিউর আবেদনে আম্পায়ারের সাড়া না পেয়ে স্টাম্পে লাথি মারেন সাকিব। পরের ওভারেই বৃষ্টি নামলে আম্পায়ার খেলা বন্ধ করলে সাকিব আবারও স্টাম্প উপড়ে ফেলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x