গোপালগঞ্জে তিনটি ইউনিয়ন লকডাউন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
অধিকহারে করোনা রোগী শনাক্ত হাওয়ায় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড়, বৌলতলী ও সাহাপুর ইউনিয়ন লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভিগের দেয়া এ লকডাউন কার্যকর করতে শুক্রবার (২৮ মে) সকাল থেকে মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
গোপালগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. মো. সাকিবুর রহমান জানান, কয়েকদিন আগে তেলিভিটা গ্রামের মোটরগ্যারেজ ব্যবসায়ী বিভাষ কৃত্তনীয়া করোনার উপসর্গ ঠাণ্ডা ও জ্বর নিয়ে মারা গেলে ওই গ্রামের ৯১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হলে ২৩ জনের পজেটিভ রিপোর্ট আসে।
পরে আরো ৯৮ জনের করোনা নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হলে আরো ২১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে ওই গ্রামে গত তিনদিনে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৪ জনে। ফলে করোনা সংক্রম রোধে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্যবিভাগ তেলিভিটা গ্রামসহ সদর উপজেলার সাতপাড়, বৌলতলী ও সাহাপুর ইউনিয়নে বিশেষ লকডাউন ঘোষণা করে।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, এ পযর্ন্ত গোপালগঞ্জ জেলায় তিন হাজার ৭৯০ জন আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে শুধু মে মাসেই আক্রান্ত হয়েছেন ১৯৯ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৭ জন। মার্চ মাসে করোনা আক্রান্তের হার ৪.৫% ছিল। এপ্রিল মাসে তা লাফিয়ে ১৪.৫% এ দাঁড়িয়েছে।
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রাশেদুর রহমান জানান, লকডাউন চলাকালে ইউনিয়ন তিনটির হাট-বাজার ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে। এছাড়া গণপরিবহন চলাচল সীমিত রাখা হবে। অতি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়ার পাশাপশি সরকারি অনুদান প্রদান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x